English

সাইন আপ

লগ ইন

সাধারণ জ্ঞান

লিংক বিল্ডিং

অধিক ভিজিটরের জন্য বিজ্ঞাপন

পয়েন্ট উপার্জন

লিংক বিল্ডিং ও নীতিমালা

প্রশ্ন করুন?

প্রশ্ন* বিস্তারিত (ঐচ্ছিক) প্রশ্নের ধরন* সম্পর্কিত ট্যাগ*

প্রশ্ন: মুরগী বিরিয়ানি রান্না করতে হয় কিভাবে?

ডাইনিং আউট

বিরিয়ানি আমার খুব প্রিয় খাবার। কিন্তু রান্না করতে গিয়ে পারিনি কেউ আমাকে বিরিয়ানি রান্নার রেসিপিটা বলেন।









উত্তর: HIMU500 কর্তৃক
উপকরণঃ মুরগির মাংসের ৮ টি বড় টুকরো, বাসমতি চাল – ১ কেজি , গোলমরিচ – ৫ টি, টকদই – ১ কাপ , আদা, রসুন বাটা – ১ টেবিল চামচ করে , এলাচ, দারচিনি, লবঙ্গ, হলুদ, ধনে, জিরা গুঁড়া – ১/২ চা চামচ করে , লংকা গুড়ো – ১ চা চামচ , পেঁয়াজ কুচি – ১ কাপ , টমেটো – ২ টি (টুকরো করা) , গরম মশলা গুড়ো – ১ চা চামচ , বিরিয়ানি মশলা – ১ চা চামচ , গোলমরিচ গুড়ো – ১/২ চা চামচ , মেথি – ১/২ চা চামচ , লেবুর রস – ২ টেবিল চামচ , কাঁচালংকা – ৫ টি (কুচি) , পুদিনা পাতা কুচি – ১ টেবিল , ধনেপাতা কুচি – ২ টেবিল চামচ , দুধ – ১/২ কাপ (জাফরান মিশানো) , লবণ – পরিমাণমতো , তেল – ১ কাপ , ঘি – ৩ টেবিল চামচ। প্রণালিঃ চাল ১০ মিনিট ভিজিয়ে রেখে আস্ত গরম মশলা ও লবণ দিয়ে সিদ্ধ করুন । মুরগির মাংস, টকদই, হলুদ, ধনে, জিরা গুড়ো, মরিচ গুড়ো, আদা, রসুন বাটা একত্রে মেখে ১ ঘণ্টা ম্যারিনেট করুন । তেল গরম করে পেঁয়াজ বাদামি করে ভেজে টমেটো দিয়ে ভুনে নিন । এবার ম্যারিনেট করা মাংস দিয়ে কষিয়ে নিন । প্রায় সিদ্ধ হয়ে গেলে লেবুর রস, মেথি, গোলমরিচ গুড়ো, গরম মশলা গুড়ো, বিরিয়ানি মশলা দিয়ে আরো কিছুক্ষণ রান্না করুন । জল শুকিয়ে তেল ভেসে উঠলে নামিয়ে নিন । এবার একটি বড় পাত্রে প্রথমে রান্না করা মাংস, তার উপর সিদ্ধ চাল, কাঁচালঙ্কা, পুদিনা পাতা, ধনেপাতা কুচি দিয়ে পুনরায় এভাবে আরেকটি লেয়ার করে তার উপর দুধ, ঘি ও লবণ ছিটিয়ে দিয়ে ভালো করে ঢেকে ৩০ মিনিট পর নামিয়ে নিয়ে পরিবেশন করুন ।



উত্তর: SMARON007 কর্তৃক
উপকরণ ও পরিমানঃ – মুরগীর মাংস, ১ কেজি – বাসমতী চাল, ১ কেজি – নূতন গোল আলু, ২৫০/৩০০ গ্রাম – পেঁয়াজ কুঁচি, হাফ কাপ – আদা বাটা, দেড় টেবিল চামচ – রসুন বাটা, দেড় টেবিল চামচ – জিরা গুড়া, ১ চা চামচ – কাঁচা মরিচ বাটা, দুই টেবিল চামচ (ঝাল বুঝে) – গোল মরিচ বাটা, আধা চা চামচ – জয়ত্রী বাটা, হাফ চা চামচ – জয়ফল বাটা, এক চিমটি – বাদাম বাটা, হাফ কাপ বা তার কম (কাজু বাদাম বাটা হলেও চলবে) – গরম মশলা (লবঙ্গ কয়েকটা, এলাচি কয়েকটা, দারুচিনি কয়েক পিস) – লবন, পরিমান মত – চিনি, হাফ চা চামচ – কিসমিস, দুই টেবিল চামচ – খেজুর, স্লাইস করে কাটা, একটা – দুধ, দেড় কাপ – কয়েকটা আস্ত কাঁচা মরিচ (বুঝে) – তেল, পনে দুই কাপ (বাসমতী চালে তেল একটু বেশি লাগে, তেল কম হলে বাসমতী চাল খসখসে দেখায়, স্বাদ কমে যায়, দেশী পোলাউ চালে তেল কম দিলেও চলে) – ঘি, তিন চামচ (ঘি না থাকলে নাই) – পানি (গরম হলে ভাল, রান্না শুরুর আগে কিছু পানি গরম করে রেখে দিতে পারেন তবে না হলে নাই, ব্যাপার না!) নন স্টিকি পাত্রে রান্নাই উত্তম। সাধারন সিলভারের পাত্রে রান্নায় আরো বেশি মনোযোগী হতে হবে এবং আগুন সব সময়েই মাঝারি আঁচে রাখতে হবে। প্রস্তুত প্রনালীঃ ১। চাল প্রিপারেশন বাসমতী চাল ধুয়ে আধা ঘন্টার জন্য পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এর পর আলাদা একটা হাড়িতে চাল গুলোকে হাফ সিদ্ধ (ফুটিয়ে) করে পানি ঝরিয়ে রাখুন। বাসমতী চাল শক্ত এবং সহজে মজে না ফলে এই হাফ সিদ্ধ করে নিতে হবে। ২। মশলা প্রিপারেশন আপনি চাইলে গোল মরিচ, জয়ত্রী, জয়ফল,  বাদাম,  গরম মশলা (লঙ্গ, এলাচি কয়েকটা, দারুচিনি কয়েক পিস) একসাথে সামান্য ভেজে তার পর বেটে নিতে পারেন (এতে স্বাদ বাড়ে তবে সেই স্বাদ বুঝতে হলে জিহব্বার উপর আস্তা রাখতে হবে। হা হা হা)। আর আলাদা আলাদা করে বাটা থাকলেতো কথাই নেই! মারহারা! ৩। আলু প্রিপারেশন আলু ছিলে হাফ সিদ্ধ করে সামান্য তেলে আলু গুলোকে ভেজে রাখতে হবে। ৪। মুল রান্নাঃ যে পাত্রে (পাত্র সিলেকশনে খেয়াল রাখতে হবে, সব কিছু মিলিয়ে পাত্রে কত কেজি জায়গা হয় তা আগেই বুঝে নিতে হবে) বিরিয়ানী রান্না করেবেন তাতে মুরগীর মাংস দিন এবং তেল সহ উপরে উল্লেখিত সব মশলা, ভেজষ এবং লবন/চিনি দিয়ে ভাল করে মাখিয়ে নিন।  (দুধ ছাড়া) হাফ কাপ পানি সহ এবার চুলায় মাধ্যম আঁচে পাত্রে ঢাকনা দিয়ে মিনিট ২০ জ্বাল দিতে থাকুন। মাঝে মাঝে নাড়িয়ে দিতে ভুলবেন ন ঠক এই অবস্থায় এসে যাবে। এখানে বলে রাখি দেশী মুরগী হলে আরো একটু পানি দিতে হত। এবার ভেজে রাখা আলু গুলো দিয়ে দিন। এবার দুধ দিন এবং ভাল করে মিশিয়ে কয়েক মিনিট জ্বাল দিন। এবার হাফ সিদ্ধ করে রাখা বাসমতী চাল দিয়ে দিন। অতিরিক্ত আর পানি লাগার কথা নয়। তবে হাতের কাছে পানি রাখুন, লাগলে দেয়া যেতে পারে। এই পর্যায়ে লবন দেখুন। এই ভেসে থাকা পানিটাইয় একটু বেশি লবন হতে হবে, যাকে আমরা কটা স্বাদ বলি। এবার ঢাকনা দিয়ে মাধ্যম আঁচে মিনিট ১৫ রাখুন। মাঝে উলটে দেখে নিবেন। চাল বেশীক্ষন ভিজিয়ে রাখলে সময় কম লাগতে পারে। চুলার ধার ছেড়ে যাবেন না। ঠিক এমন অবস্থায় এসে যাবে। এবার শহুরে দমের (চুলায় একটা তাওয়া দিয়ে তার উপর বিরিয়ানির পাতিল রাখুন, আগুন মাধ্যম আঁচে থাকবে বা কমিয়েও দেয়া যেতে পারে) ব্যবস্থা করুন। ঠিক চাল এই রকম ঝরঝরে হয়ে উঠবে। (যদি/ইনকেইস চাল শক্ত থাকে তবে সামান্য পানি ছিটিয়ে আবারো ভাল করে নাড়িয়ে দিতে পারেন এবং দমেই হয়ে উঠবে।) সময় না থাকলে কিংবা রান্নায় দেরী হয়ে গেলে (!) খাবার টেবিলেই হাড়ি নিয়ে রাখতে পারেন। যার যা ইচ্ছা গরম গরম উঠিয়ে নিয়ে খেতে পারে।


উত্তর: NOYAN32 কর্তৃক
উপকরণ ও পরিমানঃ – মুরগীর মাংস, ১ কেজি – বাসমতী চাল, ১ কেজি – নূতন গোল আলু, ২৫০/৩০০ গ্রাম – পেঁয়াজ কুঁচি, হাফ কাপ – আদা বাটা, দেড় টেবিল চামচ – রসুন বাটা, দেড় টেবিল চামচ – জিরা গুড়া, ১ চা চামচ – কাঁচা মরিচ বাটা, দুই টেবিল চামচ (ঝাল বুঝে) – গোল মরিচ বাটা, আধা চা চামচ – জয়ত্রী বাটা, হাফ চা চামচ – জয়ফল বাটা, এক চিমটি – বাদাম বাটা, হাফ কাপ বা তার কম (কাজু বাদাম বাটা হলেও চলবে) – গরম মশলা (লবঙ্গ কয়েকটা, এলাচি কয়েকটা, দারুচিনি কয়েক পিস) – লবন, পরিমান মত – চিনি, হাফ চা চামচ – কিসমিস, দুই টেবিল চামচ – খেজুর, স্লাইস করে কাটা, একটা – দুধ, দেড় কাপ – কয়েকটা আস্ত কাঁচা মরিচ (বুঝে) – তেল, পনে দুই কাপ (বাসমতী চালে তেল একটু বেশি লাগে, তেল কম হলে বাসমতী চাল খসখসে দেখায়, স্বাদ কমে যায়, দেশী পোলাউ চালে তেল কম দিলেও চলে) – ঘি, তিন চামচ (ঘি না থাকলে নাই) – পানি (গরম হলে ভাল, রান্না শুরুর আগে কিছু পানি গরম করে রেখে দিতে পারেন তবে না হলে নাই, ব্যাপার না!)


উত্তর: MOMIN কর্তৃক
মুরগি কিনে রেডি করে নিতে হবে, তারপর বাজি করতে হবে, বিরিয়ানির চাউল ও অন্যান্য জিনিস রেডি করতে হবে, মাঝামাঝি সময়ে মুরগি এড করলেই পেয়ে যাবেন সাদের বিরিয়ানি


আরও উত্তর (০)
উত্তর দিন


t
g+
f

এই ধরণের আরো প্রশ্ন

প্রশ্ন: পুষ্টিগুনসহ দশটি গুরুত্বপূর্ন খাবার

প্রশ্ন: বাংলাদেেশের দশটি বিখ্যাত খাবার হোটেল

প্রশ্ন: বাসায় তৈরি আপনার প্রিয় দশটি খাবার

প্রশ্ন: মুরগী বিরিয়ানি রান্না করতে হয় কিভাবে?

সর্বশেষ প্রশ্ন

প্রশ্ন: ৮-১০ লাক্ষ টাকার মধ্যে আমাকে কয়েকটি ব্যবসার নাম বলে দিন দয়া করে।

প্রশ্ন: উপভাষা কি ? কয়েকটি বাংলা আঞ্চলিক উপভাষা সম্পর্কে জানুন

প্রশ্ন: কিভাবে অনলাইন থেকে টাকা আয় করবেন । টাকা উপার্জন মাধ্যম সমূহ

প্রশ্ন: ময়মনসিংহ বিভাগের জেলার সংখ্যা কয়টি ও কি কি?

প্রশ্ন: অল্প পুঁজিতে করা যায় এমন দশটি লাভজনক ব্যবসা

প্রশ্ন: সুন্দর জীবন যাপনের কয়েকটি উপায়?

প্রশ্ন: কিভাবে পরীক্ষাতে ভাল ফলাফল করতে পারি?

প্রশ্ন: শেরপুর জেলার দশটি দর্শনীয় স্থান

প্রশ্ন: শেরপুর জেলার থানার সংখ্যা কয়টি এবং কি কি?

প্রশ্ন: শেরপুর জেলার বিখ্যাত কয়েকজন রাজনীতিবিদ ও তাদের দল?

প্রশ্ন: শেরপুর জেলার কয়েকজন জনপ্রিয় বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব

প্রশ্ন: ময়মনসিংহ জেলার কয়েজন জনপ্রিয় বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব

প্রশ্ন: ময়মনসিংহ জেলার থানার সংখ্যা কয়টি এবং কি কি?

প্রশ্ন: ময়মনসিংহ জেলার দশটি বিখ্যাত দর্শনীয় স্থান

প্রশ্ন: ময়মনসিংহ জেলার কয়েকজন বিখ্যাত ও জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ

প্রশ্ন: জামালপুর জেলার কয়েকজন জনপ্রিয় বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব

প্রশ্ন: জামালপুর জেলার কয়েকজন বিখ্যাত ও জনপ্রিয় রাজনীতিবিদ

প্রশ্ন: জামালপুর জেলার থানার সংখ্যা কয়টি এবং কি কি?

প্রশ্ন: জামালপুর জেলার দশটি বিখ্যাত দর্শনীয় স্থান

প্রশ্ন: নেত্রকোনা জেলার কয়েকজন জনপ্রিয় বিখ্যাত ব্যক্তিত্ব